• আপডেট টাইম : 08/02/2021 11:43 PM
  • 103 বার পঠিত
প্রতীকি স্কেচ
  • মো. কামরুজ্জামান
  • sramikawaz.com

গাজীপুরে এক পোশাক কারখানার শ্রমিক তার স্ত্রীকে গাড়িতে তুলে দিয়েছিলেন গন্তব্যে নামিয়ে দেওয়ার জন্য। ওদিকে মেয়ের অপেক্ষায় রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে ছিলেন মা-বাবা। নির্ধারত সময়ের অন্তত ৪ ঘণ্টা অতিবাহিত হয়ে যাওয়ার পরও গন্তব্যে না পৌঁছায় দুশ্চিন্তায় পড়ে যান মেয়েরটি বাবা-মা। এক পর্যায়ে তারা নিরাশ হয়ে ফিরে যাবার পর ক্লান্ত হয়ে বাসায় ফেরেন ওই মেয়ে। পরে মেয়েটি গাড়ির ভেতরেই চালক ফারুক হোসেন তাকে ধর্ষণ করেছেন বলে জানান মা-বাবাকে।

গাজীপুরের মাওনা চৌরাস্তা এলাকায় গত শনিবার মধ্যরাতে এই ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় সোমবার গ্রেপ্তার হওয়া গাড়ির চালক ফারুককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালত ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন।

জানা গেছে, পোশক শ্রমিক স্বামী তার স্ত্রীকে শনিবার সন্ধ্যার পর শ্রীপুর উপজেলার সিঅ্যান্ডবি বাজার এলাকা থেকে শ্রমিকবাহী একটি মিনিবাসে তুলে দেন। ওদিকে মাওনার পল্লী বিদ্যুৎমোড় এলাকায় অপেক্ষায় ছিলেন ওই মেয়ের মা-বাবা। কিন্তু গাড়ির চালক মেয়েকে তার গন্তব্যে না নামিয়ে নিয়ে যান অন্তত ১৫ কিলোমিটার দূরে কাওরাইদের বেলদিয়া এলাকায়। সেখানে গাড়ি থামিয়ে তাকে ধর্ষণ করা হয় বলে ওই গৃহবধূর অভিযোগ।

পরে রাতেই চালক ফারুকের কাছ থেকে ছাড়া পেয়ে সোজা বাসায় মা বাবার কাছে তিনি চলে আসেন এবং ঘটনার বিস্তারিত জানান। পরে এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ রোববার রাতে শ্রীপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এক পর্যায়ে গাড়িতে ধর্ষণের শিকার মেয়ের স্বজনরাই অভিযুক্ত ফারুককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেন।

শ্রীপুর থানার ওসি খোন্দকার ইমাম হোসেন বলেন, ৭দিনের রিমান্ড চেয়ে সোমবার ফারুককে আদালতে পাঠানো হয়েছিল। আদালত তার ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...