• আপডেট টাইম : 17/11/2020 12:47 AM
  • 96 বার পঠিত
  • আওয়াজ প্রতিবেদক
  • sramikawaz.com

প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান বলেছেন, সরকারি ব্যাংকগুলো না থাকলে বেসরকারি খাত উঠে দাঁড়াতে পারতো না। দেশের বেসরকারি খাত প্রতিষ্ঠিত হয়েছে সরকারি ব্যাংকগুলোর মাধ্যমে।

মঙ্গলবার ১৭ নভেম্বও ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলায় শোল্লা বাজারে রূপালী ব্যাংকের শোল্লা বাজার শাখা ভার্চুয়ালি উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

রূপালী ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান মনজুর হোসেন, এমপি’র সভাপতিত্বে ভার্চুয়াল প্লাটফর্মের এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ব্যাংকের ম্যানেজিং ডিরেক্টর এন্ড সিইও মো. ওবায়েদ উল্লাহ আল মাসুদ।

সালমান এফ রহমান বলেন, আমাদের দেশ বর্তমানে যে অবস্থানে এসে পৌঁছেছে সেটা একমাত্র প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কল্যাণে। ওয়ান ইলেভেনের পর কেউ যদি আমাকে বলতো, ১০/১১ বছর পর বাংলাদেশের অর্থনীতি বর্তমান অবস্থায় পৌঁছাবে তাহলে আমি তা বিশ্বাস করতাম না। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশের অর্থনীতিকে যেখানে নিয়ে এসেছেন তাতে বাংলাদেশ আজ বিশ্ব অর্থনীতির রোল মডেল। তিনি আমাদের সবসময় সঠিক দিক-নির্দেশনা দিচ্ছেনÑ কখন কি করতে হবে।
সালমান এফ রহমান বলেন, অনেক সময় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্তকে আমাদের কাছে সঠিক মনে হয়নি। তবে পরে দেখা যায়, তাঁর সিদ্ধান্তই সঠিক ছিল। প্রধানমন্ত্রী যখন ব্যাংক সুদে ৯ শতাংশের সীমা নির্ধারণ করে দিলেন তখন আমাদের মনে হয়েছিল, তাঁর সিদ্ধান্তটি ভুল। আমাদের মনে হয়েছিল, ৯ শতাংশ সুদহার বেধে দিলে ব্যাংক খাত ধংস হয়ে যাবে। ব্যাংক খাতের সব উদ্যোক্তারা আমাকে এসে ধরেছিল বিষয়টি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলার জন্য। বিষয়টি নিয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আমি কথাও বলেছিলাম। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী আমাদেরকে বলেছিলেন বাস্তবায়ন করার জন্য। বাকিটা তিনি দেখার আশ্বাস দিয়েছিলেন। ৯ শতাংশ সুদহার বাস্তবায়ন করার পর আমরা দেখলাম, প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্তই সঠিক ছিল। ছয়-নয় সুদহার বাস্তবায়ন করার পর কোনো ব্যাংকেরই খুব সমস্যা হয়নি। বরং ব্যবসায়ীরা ৯ শতাংশ সুদে ঋণ নিয়ে ব্যবসা করতে পেরেছে। এই সিদ্ধান্তটি সঠিক সময়ে নেওয়া হয়েছিল বিধায় ব্যবসায়ীরা এই করোনা মহামারির সময়েও খুব বেশি সমস্যায় পড়েনি। যে কারণে বাংলাদেশের অর্থনীতি টিকে থাকতে পেরেছে।
‘সরকারি খাতের রূপালী ব্যাংক পর্ষদ চেয়ারম্যান মনজুর হোসেন ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক ওবায়েদ উল্লাহ আল মাসুদের নেতৃত্বে ভাল করছে’ উল্লেখ করে সালমান এফ রহমান বলেন, মাসুদ যখন সোনালীতে ছিল তখনও অনেক ইনোভেটিভ আইডিয়া বাস্তবায়ন করেছে। এখন রূপালীতেও বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে।

সভাপতির বক্তব্যে রূপালী ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান মনজুর হোসেন, এমপি বলেন, করোনার মধ্যেও দেশের অর্থনীতি টিকে রয়েছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দক্ষ নেতৃত্বের কারণে।

স্বগত বক্তব্যে ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও মো. ওবায়েদ উল্লাহ আল মাসুদ বলেন, আমরা মিল্কভিটার মাধ্যমে ১ হাজার দুগ্ধ খামারিকে ১০ কোটি টাকা ঋণ দিয়েছি। উদ্বৃত দুধ বিক্রির জন্য আমরা টাকা দিয়েছি। করোনায় মানুষ মারা গেলেও দেশে কেউ না খেয়ে মারা যায়নি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দূরদর্শী নেতৃত্বের কারণেই এটা সম্ভব হয়েছে।
তিনি আরও বলেন, হাওরে স্বাভাবিক অবস্থায় ৭০ থেকে ৮০ পার্সেন্টের বেশি ধান কাটা যায় না। এবার মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে কৃষি খাতে বিপ্লব ঘটেছে। করোনার মধ্যেও সারাদেশে শতভাগ ধান কাটা সম্ভব হয়েছে। কৃষি আমাদের দেশকে বাঁচিয়ে দিয়েছে। নবাবগঞ্জ উপজেলাকে ঢাকা শহরের সবজির ভাÐার বলা হয়। রূপালী ব্যাংকের শোল্লা শাখার মাধ্যমে আমরা নবাবগঞ্জের কৃষকদের সহায়তা করবো।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নবাবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এইচ. এম. সালাউদ্দীন মনজু ও নবাবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের আহবায়ক মিজানুর রহমান ভুঁইয়া কিসমত। অন্যান্যদের মধ্যে ভার্চুয়ালি যুক্ত ছিলেন ব্যাংকের ডিএমডি মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম, খন্দকার আতাউর রহমান ও মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর, জিএম অশোক কুমার সিংহ রায়, শফিকুল ইসলাম, পারসুমা আলমসহ ব্যাংকের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...