• আপডেট টাইম : 17/11/2020 10:28 AM
  • 125 বার পঠিত
  • প্রেস বিজ্ঞপ্তি
  • sramikawaz.com


আমরা পড়তে চাই, আপনাদের সন্তানদের মত সুস্থ্য ও সুন্দর ভবিষ্যৎ চাই। অবিলম্বে তাজরীনের শ্রমিকদের ¶তিপূরণসহ তিন দফা দাবী মেনে নিয়ে আমাদের সুস্থ্য ও সুন্দর জীবনের সুযোগ করে দিন। প্রধানমন্ত্রী ও দেশবাসীর প্রতি খোলা চিঠিতে এই আবেদন জানায় তাজরীন গার্মেন্টসের আহত শ্রমিকের সন্তানেরা।
১৬ নভেম্বর-২০২০ সকাল ১১:৩০টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের ফুটপাথে তাজরীন গার্মেন্টসের আহত শ্রমিকের সন্তানরা প্রধানমন্ত্রী ও দেশবাসীর প্রতি খোলা চিঠি প্রকাশ করে। উক্ত কর্মসূচিতে খোলা চিঠি পাঠ করেন তাজরীন গার্মেন্টসের আহত শ্রমিক জরিনা বেগমের মেয়ে সাবিনা ইয়াসমিন এবং নাসিমা খাতুনের ছেলে আব্দুর কাদের নাহিদ গাজী।
শ্রমিক সন্তানদের এই কর্মসূচিতে বিপ্লবী ছাত্র মৈত্রী’র নেতা-কর্মীরা যোগ দেন। এছাড়াও সংহতি জানিয়ে উপস্থিত ছিলেন গার্মেন্টস শ্রমিক অধিকার আন্দোলনের সমš^য়ক শামীম ইমাম, বাংলাদেশ গার্মেন্টস শ্রমিক মুক্তি আন্দোলনের সভাপতি শবনম হাফিজ, গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক রাজু আহমেদ, বিপ্লবী গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি অরবিন্দু বেপারী, গণতান্ত্রিক শ্রমিক ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় নেতা কাওসার মনসুর প্রমুখ।
প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে খোলা চিঠিতে সাবিনা ইয়াসমিন বলে, আজ প্রায় দুই মাস ধরে আমরা বাবা-মায়েদের কাছ থেকে আলাদা। তারা প্রেস ক্লাবের ফুটপাথে রাত দিন থাকে। আমাদেরকে বাসায় একা থাকতে হয়। প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমাদের আকুল আবেদন তাড়াতাড়ি ¶তিপূরণসহ তিন দফা দাবি মেনে নিয়ে আমাদের পরিবারকে আমাদের কাছে ফিরিয়ে দিন।
দীর্ঘদিন আমরা মা অসুস্থ থাকার জন্য আমাদের পরিবারের উপার্জন নাই। আমাদের খাওয়া-পড়ার বন্ধ হয়ে যাচ্ছে।
আব্দুল কাদের নাহিদ গাজী তার লেখা চিঠিতে জানায়, আমার মা গত দুই মাস ধরে বাসায় থাকে না। জিজ্ঞাস করলে বলে তাজরীনের আন্দোলনের জন্য প্রেস ক্লাবের সামনে থাকতে হয়।
আমরা তিন ভাই-বোন এতদিন মাকে ছাড়া বাসায় আছি। আমি সপ্তম শ্রেণীতে পড়ি। আমার বাকী ভাই-বোনও স্কুলে যায়। আমার মা আগে চাকরী করে আমাদেও সংসার চালাতো। কিন্তু তাজরীন গার্মেন্টসে আহত হওয়ার করণে মা আর চাকরি করতে পারে না। এই ঠিকমত আমাদের পড়াশোনা হচ্ছে না। তাছাড়া মা না থাকায় বাসায় আমাদের খুব মন খারাপ হয়।
আমি আমার মাকে বাসায় নিয়ে যেতে চাই। আপনারা আমার মায়ের বাড়ি ফিরে যাওয়ার ব্যবস্থা করে দিন।
উল্লেখ্য তাজরীন গার্মেন্টস অগ্নিকাণ্ডে আহত শ্রমিকরা প্রায় ২মাস যাবৎ ন্যায্য ¶তিপূরণ, পুনর্বাসন ও দীর্ঘমেয়াদী চিকিৎসার দাবিতে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে অবস্থান কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছে। আন্দোলনকারী শ্রমিক জরিনা বেগম উক্ত কর্মসূচিতে বলেন, আমাদের সন্তানদের আজ এভাবে ফুটপাথে দেখতে হবে এটা জানতে পারলে এ অগ্নিকাণ্ডের দিনে গার্মেন্টস থেকে লাফ দিতাম না। সন্তানদের এই দৃশ্য দেখার চেয়ে সেদিন আগুনে পুড়ে মরা ভাল ছিল। তিনি প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্যে করে বলেন আগামী ২৪ তারিখে মধ্যেই আমাদের দাবি বাস্তবায়নের ব্যবস্থা করুন।
প্রেস বিজ্ঞপ্তিটি পাঠিয়েছেন গার্মেন্টস শ্রমিক অধিকার আন্দোলনের সমš^য়ক শামীম ইমাম।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...