• আপডেট টাইম : 31/10/2020 09:02 PM
  • 40 বার পঠিত
  • 1
  • sramikawaz.com

কুষ্টিয়ায় গ্রীষ্মকালীন সবজি লাউ চাষে ব্যাপক সাফল্য পেয়েছেন কৃষকরা। চলতি গ্রীষ্ম-বর্ষা মৌসুমে কুষ্টিয়ায় ৬হাজার হেক্টর জমিতে বিভিন্ন ধরণের সবজি চাষ হয়েছে। এরমধ্যে ২০০ হেক্টর জমিতে লাউ সবজি চাষ করেছেন কৃষকরা। আর এ সবজি চাষ করে ব্যাপক সাফল্য পেয়েছেন তারা। করোনাকালীন সময়ে লাউ চাষ করে আর্থিকভাবে ¯^াবলম্বী হওয়ার পাশাপাশি স্থানীয় বাজারে সবজির চাহিদা মিটিয়ে দেশের বিভিন্ন সবজি বাজারে সরবরাহ করছেন তারা।

কুষ্টিয়ায় লাউ ক্ষেতে ঝুলে থাকা লাউ-এর সারি দেখতে যেমন মনোরম তেমনি আর্থিক যোগানের অন্যতম সহায়ক। লাউ গ্রীষ্ম-বর্ষা মৌসুমের অন্যতম সবজি এবং বাজারে এর চাহিদাও বেশী। অতিবৃষ্টির পরও লাউ সবজি চাষ করে বেশ লাভবান হচ্ছেন কৃষকরা। লাউ চাষে বিঘা প্রতি কৃষকদের খরচ হয়েছে মাত্র ১২-১৫ হাজার টাকা। আর বিক্রয় করেছেন লক্ষাধিক টাকারও বেশী। যা ¯^ল্প সময়ে এবং বর্ষা মৌসুমে কৃষকদের আর্থিক চাহিদা মিটাচ্ছে। আর এমনটাই জানিয়েছে দৌলপতপুর উপজেলার কল্যাপুর গ্রামের কৃষক আরিফ হোসেনসহ অনেকে। করোনাকালীন এই দুঃসময়ে লাউ চাষ লাভবান হওয়ায় কৃষক-কৃষানীদের মুখে হাসি ফুটিয়েছে।

আবার কৃষকদের কাছ থেকে প্রতি পিস লাউ ২৫-২৮ টাকা পাইকার দরে ক্রয় করে ভোক্তারদের কাছে তা ৩৫ টাকা বা তারও বেশী দরে বিক্রয় করছেন খুচরা ব্যবসায়ীরা। এতে তাদের সংসারে ¯^চ্ছলতাও ফিরেছে।
গ্রীষ্ম ও বর্ষা কালীন সময়ে লাউ সবজি চাষে ফলন ভাল হওয়ায় লাভবান হচ্ছেন কৃষকরা। আর সবজি চাষে কৃষকদের উৎসাহ দেওয়ার পাশাপাশি ভাল ফলনের জন্য কৃষি বিভাগ বীজ সরবরাহ, তদারকি ও পরামর্শ দিয়ে থাকেন কৃষকদেও বলে জানিয়েছেন দৌলতপুর কৃষি কর্মকর্তা এ কে এম কামরুজ্জামান।

কৃষকদের বেশী বেশী সবজি চাষে উৎসাহ ও প্রণোদনা দিলে একদিকে গ্রীষ্ম-বর্ষা মৌসুমসহ সব মৌসুমের সবজির চাহিদা মিটবে অপরদিকে অর্থকরী ফসল সবজি চাষ করে তারা আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী হবেন। এমনটাই মনে সংশ্লিষ্টরা।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...