sa.gif

মে নামের কারখানায় শ্রমিক হিসাবে নয়, কাজ করানো হয় দিনমজুর হিসাবে


শফিউল আলম, গাজীপুর থেকে : মে মাসের সাথে শ্রমজীবি মানুষের ত্যাগের মাধ্যমে এক মহান অর্জনের ইতিহাস জড়িয়ে আছে। জড়িয়ে আছে জীবন নিয়ে পেশার মর্যাদা রক্ষার ইতিবৃত্ত। জীবন ধারণের জন্য দিন রাত পরিশ্রমের পরিবর্তে ৮ ঘন্টা শ্রম ৮ ঘন্টা বিশ্রাম আর ৮ ঘন্টা বিনোদনের দাবি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে ১৮৮৬ সালের এই মে মাসে। ১৮৮৬ সালে শিকাগো শহরের সেই ত্যাগের স্মরণে বিশে^র বিভিন্ন দেশে শ্রদ্ধা ও ভালবাসার সাথে পালিত হয়ে আসছে এই মহান মে দিবস। গাজীপুরের জয়দেব পুরের ভোগরায় হাবিবুল্লাহ টাওয়ারে অবস্থিত ‘মে’ ফ্যাশন নামে তৈরি পোশাক কারখানায় শ্রমিকদের শ্রমিক থেকে দিনমজুরের মর্যাদা দিয়েছে।


শ্রমিকরা জানান, কারখানাটিতে প্রায় ১৪০০ শ্রমিক কর্মরত আছে। এই বিপুল সংখ্যক শ্রমিক সেখানে কর্মরত থাকলেও ওই কারখানায় কোন নিয়োগ পত্র দেওয়া হয় না। দেওয়া হয় না কোন আইডি কার্ড। নেই প্রভিডেন্ট ফান্ড বা শ্রমিকি কোনে মর্যাদা। কোন ছুটি দেওয়া হয় না কারখানা থেকে, জরুরি প্রয়োজনেই ছুটি নেই। অসুখ বিসুখ বা অনিচ্ছাকৃত অনুপিস্থিত থাকলে হাজিরা কেটে রাখ হয়। নারী শ্রমিকদের মাতৃকালিন ছুটিয় দেওয়া হয় না। কোন নারী শ্রমিক গর্ভবতী হলে তাকে আগে থেকেই চাকরি থেকে ছাঁটাই করা হয়। কারখানাটিতে প্রতিদিনের হাজিরার হিসাবে রক্ষার জন্য দৈনিক হাজিরার একটি কার্ড দেওয়া হয়। তারপরও সেই কার্ডে যোগদানের কোন তারিখ নেই। কারখানাটি শ্রম আইনের কোন ন্যুনতম তোয়াক্কা করে না।


বিষয়টি নিয়ে কথা বলার চেষ্টা করা হলে ফোনে কোন উর্দ্ধতন কোন কর্মকর্তার সাথে কথা বলা যায়নি। কেউই ফোন রিসিভ করেননি। কারখানার ফ্লোর ইনচার্জ জাহিদুল ইসলাম ইসলাম উর্দ্ধতন কর্মকর্তার সাথে কথা বলে বলে ফোনে অপেক্ষায় রেখে কিছুক্ষন পর জানান কারখানায় উর্দ্ধতন কোন কর্মকর্তা নেই, পরে কথা বলেন।






Pakkhik Sramik Awaz
Reg: DA5020
News & Commercial:
85/1 Naya Paltan, Dhaka 1000
email: sramikawaznews@gmail.com
Contact: +880 1972 200 275, Fax: +880 77257 5347

Legal & Advisory Panel:
Acting Editor: M M Haque
Editor & Publisher: Zafor Ahmad

Developed by: Expert IT Solution