sa.gif

ভারতে ‌৪ বছরে ড্রেন পরিস্কার করতে গিয়ে মারা গেছে ২৮২ পরিচ্ছন্নকর্মী
আ্ওয়াজ ডেস্ক :: 22:30 :: Thursday January 30, 2020 Views : 138 Times


কোমর পর্যন্ত আবর্জনার পাঁক। আসলে বিষ্ঠা। সেই পাঁক উঠে যায় কখনও গলা পর্যন্ত। একটু এদিক ওদিক হলে নাকে–মুখে ঢুকে যায়। দম আটকে দেয়। এর মধ্যেই কাজটা করে যেতে হয় ওঁদের। ওঁরা এদেশের সাফাইকর্মী। নর্দমায় নেমে হাত দিয়ে বালতি করে পাঁক তোলেন। এই কাজ করতে গিয়ে প্রতি বছর মারা যন বহু মানুষ। পরিসংখ্যান বলছে, ২০১৬ থেকে ২০১৯ সালের নভেম্বর পর্যন্ত এদেশে মারা গেছেন ২৮২ জন সাফাইকর্মী। বাস্তবে সংখ্যাটা নাকি আরও বেশি।
রাজ্যসভায় এই সাফাইকর্মীদের অবস্থা এবং পরিণতি নিয়ে প্রশ্ন করেছিলেন সাংসদ বন্দনা চভন। জবাবে এই পরিসংখ্যানই তুলে ধরেছে কেন্দ্রীয় সামাজিক ন্যায় এবং ক্ষমতায়ন মন্ত্রক। এই ক’‌বছরে সবথেকে বেশি সাফাইকর্মী মারা গেছেন তামিলনাড়ুতে। সেখানে মৃতের সংখ্যা ৪০। এর পরেই রয়েছে হরিয়ানা। ২০১৬ থেকে ২০১৯ সালের নভেম্বর পর্যন্ত সেখানে ৩১ জন সাফাই কর্মী মারা গেছেন। দিল্লি এবং গুজরাট আসছে তার পরে। সেখানে ৩০ জন সাফাইকর্মী মারা গেছেন। চতুর্থস্থানে রয়েছে মহারাষ্ট্র এবং উত্তরপ্রদেশ। সেখানে মারা গেছেন ২৭ জন।
প্রসঙ্গত, সেপটিক ট্যাঙ্ক এবং নালা নর্দমা পরিষ্কারের জন্য সাফাইকর্মী নিয়োগ করে স্থানীয় প্রশাসন। তাঁদের মৃত্যু হলে স্থানীয় প্রশাসনই এফআইআর দায়ের করে। মন্ত্রক জানিয়েছে, সাফাইকর্মীদের মৃত্যুর পর উদ্দিষ্ট রাজ্যের করা এফআইআর থেকেই এই পরিসংখ্যান সামনে এসেছে। পরিসংখ্যানে আরো জানা গেছে, ২০১৬ সালে দেশে ৫০ জন সাফাইকর্মী মারা গেছেন। ২০১৭ সালে ৮৩ জন, ২০১৮ সালে ৬৬ জন, ২০১৯ সালের নভেম্বর পর্যন্ত ৮৩ জন মারা গেছেন। এই হাত দিয়ে আবর্জনা সাফাই বন্ধের বিরুদ্ধে বহু বছর ধরে সোচ্চার সাফাই কর্মচারী আন্দোলন নামে সংগঠন। সংগঠনের প্রধান বেজওয়াড়া উইলসন জানিয়েছেন, পরিসংখ্যানের থেকে বাস্তবে অনেক বেশি সাফাইকর্মী মারা যান প্রতি বছর। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে রাজ্য প্রশাসনের তরফে এফআইআর হয় না। ফলে তথ্যও উঠে আসে না। ২০০০ সালের পর থেকে তারা তথ্য হাতে পেয়েছেন। তাতে দেখা গেছে, ১,৭৬০ জন সাফাইকর্মী মারা গেছেন।
উইলসনের মতে, তামিলনাড়ু, উত্তরপ্রদেশ, গুজরাটে নগরোন্নয়ন পরিকল্পনামাফিক হয়নি। তাই সেখআনে নালা পরিষ্কার করতে নেমে প্রাণ হারান বেশি মানুষ। মন্ত্রকের তরফে আরও জানানো হয়েছে, ১৭টি রাজ্যে নথিভুক্ত সাফাইকর্মীর সংখ্যা ৬০,৪৪০ জন। এর মধ্যে ৩৫,৪৭২ জনই উত্তরপ্রদেশে কাজ করেন।
সুত্র ,কোলকাতা



Comments





Pakkhik Sramik Awaz
Reg: DA5020
News & Commercial:
85/1 Naya Paltan, Dhaka 1000
email: sramikawaznews@gmail.com
Contact: +880 1972 200 275, Fax: +880 77257 5347

Legal & Advisory Panel:
Acting Editor: M M Haque
Editor & Publisher: Zafor Ahmad

Developed by: Expert IT Solution