sa.gif

ঈদে পোশাক শ্রমিকদের বাড়ি ফেরা নিয়ে করোনা পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে পারে
আওয়াজ প্রতিবেদক :: 05:55 :: Tuesday July 28, 2020 Views : 158 Times

করোনা মহামারি পরিস্থিতিতে পোশাক শ্রমিকদের ঈদে বাড়ি যাওয়াকে ভয়াবহ হিসেবে দেখছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। গত ঈদের আগে এবং পরে সৃষ্ট পরিস্থিতি এড়াতে তৈরি পোশাক খাতের শ্রমিকদের আসন্ন কোরবানির ঈদে গ্রামের বাড়ি না যেতে নির্দেশনা দিয়েছে সরকার। কিন্তু ঈদে দু-একদিনের ছুটিতেই শ্রমিকরা দলবেঁধে বাড়ি রওনা দেন। এবার ঈদেও শ্রমিকরা বাড়ি যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। ফলে ঈদ ঘিরে সংক্রমণ ছড়ানোর আশঙ্কা তৈরি হয়েছে।


তৈরি পোশাক শিল্পেই প্রায় ৪০ লাখ শ্রমিক কর্মরত। সেই সঙ্গে বিভিন্ন বিপণিবিতান ও অন্যান্য প্রতিষ্ঠানেও সমপরিমাণ মানুষ কর্মরত। আসন্ন ঈদুল আজহায় এ বিপুলসংখ্যক মানুষ বাড়ির দিকে রওনা দেবে। এর আগে বিভিন্ন জেলায় এ শ্রমজীবীদের মাধ্যমে করোনা ছড়িয়ে পড়ে। করোনা রোধে সকারের পক্ষ থেকে লকডাউন, তারপর বিভিন্ন এলাকা উচ্চমাত্রার ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা হিসাবে অন্য এলাকাকে বিচ্ছিন্ন করার চেষ্টাও হয়েছে।

এতে কিছু এলাকায় ফলও এসেছে। আসন্ন ঈদের ছুটিতে শ্রমজীবীরা দলবেঁধে বাড়ি গেলে পরিস্থিতি পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাবে। এক্ষেত্রে তৈরি পোশাক শিল্পসহ অন্যান্য শিল্প কারখানার উদ্যোক্তারা শ্রমিকদের বাড়িতে না যেতে এবং পরবর্তীতে এ ছুটি পুষিয়ে দেওয়ার মধ্য দিয়ে শ্রমিকদের গ্রামমুখী হওয়া থেকে বিরত রাখার পরামর্শ দিয়েছেন মুগদা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ মো. টিটু মিয়া।

তিনি বলেন, দলবেঁধে গ্রামে যাওয়ার মধ্যে দিয়ে যেখানে করোনা সংক্রমণ নেই সেখানে সংক্রমিত হওয়ার পথ তৈরি করে দেওয়া হবে। শ্রমিকদের বাড়ি যাওয়া থেকে বিরত না রাখা যায়, তাহলে গ্রামমুখী শ্রমজীবী মানুষকে মুখে মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে উদ্যোগ নেওয়া যেতে পারে। এক্ষেত্রে তৈরি পোশাক কারখানাগুলো শ্রমিকদের সচেতন করতে পারে। গত ঈদের মতো এবারও সরকারের পক্ষ থেকে শ্রমিকদের ঈদে ঝুঁকি নিয়ে বাড়ি না যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছে। শিল্প মালিকরাও ছুটি কমিয়ে ঈদে বাড়ি যেতে নিরুৎসায়িত করার চেষ্টা করছেন। আবার শ্রমিকরা কম ছুটির মধ্যেই বাড়ি ফেরার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

তৈরি পোশাক খাতে ৪০ লাখের বেশি শ্রমিক কাজ করেন। বর্তমান করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে শ্রমঘন এ শিল্পের শ্রমিকরা যেন ঈদের তিনদিন ছুটি পেয়েই গ্রামের বাড়িমুখো না হন সেজন্য পোশাক মালিকদেরও সতর্ক থাকতে বলেছেন শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মুন্নুজান সুফিয়ান। সম্প্রতি গার্মেন্ট মালিক এবং শ্রমিক নেতাদের সঙ্গে প্রতিমন্ত্রীর এক বৈঠকে এমন নির্দেশনা দেওয়া হয়।

সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী পুলিশ কাজ করছে জানিয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (শিল্প পুলিশ) ফরহাদ হোসেন বলেন, শ্রমিকরা যাতে ঈদের ছুটিতে গ্রামের বাড়িতে না যান, সে বিষয়ে আমরা সচেতন আছি। তবে যদি লাখ লাখ শ্রমিক ছুটি পেয়ে বাড়ির পথে রওনা দেন সেক্ষেত্রে পরিস্থিতি আমাদের নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায়।

এবার কোরবানির ঈদ হবে ১ আগস্ট। সরকারি ছুটির সঙ্গে সমন্বয় করে পোশাক শ্রমিকদের ঈদের আগের দিন, ঈদের দিন ও ঈদের পরের দিন অর্থাৎ মোট তিনদিন ছুটি থাকবে।

এ বিষয়ে তৈরি পোশাক প্রস্তুত ও রপ্তানিকারক সমিতির (বিজিএমইএ) সহসভাপতি এমএ রহিম ফিরোজ খোলা কাগজকে বলেন, শ্রমিকদের দলবেঁেধ গ্রামে যাওয়া রোধ করার যন্ত্র আমাদের কাছে নেই। শ্রমিকরা গ্রামের বাড়ি যাবে কি-না তা নির্ভর করছে যোগাযোগ ব্যবস্থার ওপর। যদি গ্রামের বাড়ি যাওয়ার গাড়ি চলাচল করে, তাহলে শুধু ঈদের দিন ছুটি দিলেই তারা ভোরে বাড়ি গিয়ে পরদিন এসে কারখানায় উপস্থিত হবে। শ্রমিকদের গ্রামে যেতে দেবে না এমন মনে করলে যোগাযোগ বন্ধ করতে হবে। এটা সরকারের হাতে। তবে আমরা কারখানা বন্ধ ঘোষণা করার আগে মাইকে শ্রমিকদের বলে দেব, তারা যেখানেই যাক মুখে যেন মাস্ক ব্যবহার করে, ভিড় এড়িয়ে চলে এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলে।

শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান বলেন, সরকারি ছুটির সঙ্গে মিলিয়ে শ্রমিকদের ঈদের ছুটি তিন দিন। তবে করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে তাদের যার যার কর্মস্থল এলাকায় থাকতে বলা হয়েছে। শ্রমিক-মালিক বৈঠকে তিনি এমন পরামর্শ দেন। তিনি শ্রমিক নেতাদেরও এ ব্যাপারে উদ্যোগ নেওয়ার কথা বলেছে।

এদিকে গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের (জি-টইউসি) কার্যকরি সভাপতি কাজী রুহুল আমিন বলেন, করোনার বিষয়টা বিবেচনায় নিয়ে আমরা শ্রমিকদের আহ্বান জানিয়েছি, তারা যেন ঈদের ছুটিতে গ্রামের বাড়িতে না যায়। তারা যেন স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলে। এ ব্যাপারে উদ্যোক্তাদের উদ্যোগ নিতে হবে।



Comments





Pakkhik Sramik Awaz
Reg: DA5020
News & Commercial:
11/1/B, Kobi Josimuddin Road, Uttor Komlapur,Motijheel, Dhaka-1000
email: sramikawaznews@gmail.com
Contact: +880 1972 200 275, Fax: +880 77257 5347

Legal & Advisory Panel:
Acting Editor: M M Haque
Editor & Publisher: Zafor Ahmad

Developed by: Expert IT Solution