sa.gif

' টেকসই উন্নয়ন পোশাক খাতের বড় চ্যালেঞ্জ'
আওয়াজ প্রতিবেদক :: 09:36 :: Tuesday October 15, 2019 Views : 153 Times

প্রতিযোগিতার বিশ্ববাজারে পোশাক শিল্পের টেকসই উন্নয়ন বাংলাদেশের সামনে একটা বড় চ্যালেঞ্জ। টেকসই উন্নয়নের স্বার্থে প্রযুক্তিনির্ভর উৎপাদন ব্যবস্থায় যেতে হচ্ছে। রফতানিকারকদের সংগঠন বিজিএমইএ সভাপতি ড. রুবানা হক বলেছেন, বিশ্বের প্রায় সব জায়গা থেকেই টেকসই উন্নয়নের বিষয়ে চাপ আসছে। তারাও শিল্পের টেকসই উন্নয়ন করতে চান।

গতকাল সোমবার রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এমন মতামত দেন বিজিএমইএ সভাপতি।

ঢাকায় সাসটেইনেবল অ্যাপারেল সামিট বা টেকসই পোশাক শিল্প সম্মেলন উপলক্ষে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। আগামী ৫ নভেম্বর রাজধানীর বসুন্ধরা আন্তর্জাতিক কনভেনশন সিটিতে সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। এটি হবে পোশাক খাতের সবচেয়ে বড় আয়োজন। ৫০টি দেশের ফ্যাশন, পরিবেশ বিশেষজ্ঞ ও বাণিজ্য বিশ্নেষকরা সম্মেলনে বক্তব্য দেবেন। বিখ্যাত ব্র্যান্ড এবং খুচরা প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা আলোচনায় অংশ নেবেন। তারা পোশাক খাতের টেকসই উন্নয়নের বিষয়ে সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব এবং পরামর্শ দেবেন।

পোশাক খাতের টেকসই উন্নয়নবিষয়ক প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ অ্যাপারেল এক্সচেঞ্জ-বিএই এবং বিজিএমইএ যৌথভাবে সম্মেলনের আয়োজন করছে। নেদারল্যান্ডস সরকার, সুইস ব্র্যান্ড এইচঅ্যান্ডএম, সিঅ্যান্ড ফাউন্ডেশন এবং বেটার ওয়ার্ক বাংলাদেশ সম্মেলন আয়োজনে সহযোগিতা দিচ্ছে। পোশাক খাতের বৃহৎ এই আয়োজন দ্বিতীয়বারের মতো অনুষ্ঠিত হচ্ছে। ২০১৭ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি প্রথমবারের মতো ঢাকায় এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। অবশ্য সম্মেলনের কয়েক মাস আগে আশুলিয়ায় শ্রমিক অসন্তোষের ঘটনাকে কেন্দ্র করে অনেক ক্রেতা প্রতিষ্ঠান সম্মেলনে আসেনি।

সংবাদ সম্মেলনে বিজিএমইএ সভাপতি আরও বলেন, চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় উৎপাদনের ক্ষেত্রে অটোমেশনে যেতেই হচ্ছে উদ্যোক্তাদের। তবে এ প্রক্রিয়ায় সাধারণ শ্রমিকদের জন্য বিকল্প ব্যবস্থা রাখতে হবে। কারণ, রাতারাতি শ্রমিকরা প্রযুক্তির সঙ্গে অভ্যস্ত হতে পারবে না। আবার অন্য কোনো কাজেও যোগ দেওয়ার মতো দক্ষতা তাদের নেই। এ অবস্থায় শিল্প ও শ্রমিক দুই-ই বাঁচাতে চান তারা। এ বিষয়ে সম্মেলন থেকে উপযুক্ত সুপারিশ আসবে বলে আশা রুবানা হকের। শ্রমিক ও শিল্প বাঁচাতে অনলাইন প্রচারণা 'হ্যাশ টেগ মি গো গ্রিন, গো হিউম্যান' চালুর কথা জানান তিনি।

ঢাকায় নেদারল্যান্ডসের রাষ্ট্রদূত হ্যারি ভারউইজ বলেন, বিশ্বের সবচেয়ে কমপ্লায়েন্ট পোশাক কারখানা এখন বাংলাদেশেই বেশি। এখন টেকসই পোশাক শিল্পে নজর দেওয়ার সময় বাংলাদেশের।

বিএইর প্রতিষ্ঠাতা এবং প্রধান নির্বাহী মোস্তাফিজ উদ্দিন বলেন, সম্মেলনে টেকসই শিল্পে রূপান্তরের প্রক্রিয়া নিয়ে আলোচনা হবে। এর মাধ্যমে একটা রোডম্যাপ তৈরি হবে। এতে উদ্যোক্তারা এ বিষয়ে করণীয় নিয়ে নীতিনির্দেশনা পাবেন। এইচঅ্যান্ডএমের কান্ট্রি ডিরেক্টর জিয়াউর রহমান বলেন, পোশাক খাতের টেকসই উন্নয়ন ক্রেতাদের এখন প্রধান অগ্রাধিকার। সব কিছুতেই শতভাগ স্বচ্ছতা এবং ন্যায্যতা চান তারা।



Comments





Pakkhik Sramik Awaz
Reg: DA5020
News & Commercial:
85/1 Naya Paltan, Dhaka 1000
email: sramikawaznews@gmail.com
Contact: +880 1972 200 275, Fax: +880 77257 5347

Legal & Advisory Panel:
Acting Editor: M M Haque
Editor & Publisher: Zafor Ahmad

Developed by: Expert IT Solution