sa.gif

উপজেলা চত্ত্বর থেকে মল ছিটিয়ে আবারও টাকা ছিনতাই : নিরব দর্শকের ভূমিকায় প্রশাসন
শরীফুল ইসলাম, কুষ্টিয়া থেকে :: 15:47 :: Monday May 18, 2020 Views : 280 Times



আবারও গায়ে মল ছিটিয়ে মুক্তিযোদ্ধার ভাতার টাকা ছিনতাইয়ের অভিনব ঘটনা ঘটেছে কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর উপেজলার প্রশাসনিক সীমানার মধ্যে।১৮ মে উপজেলার চত্ত্বরে এলাকার মধ্যে সোনালী ব্যাংকের সামনে থেকে এ ঘটনা ঘটে। এ নিয়ে শুধু মুক্তিযোদ্ধাদের কাছে থেকে আটবার ভাতার টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটলো।


আজ সোমবার ১৮ মে বেলা ১১টার দিকে সোনালী ব্যাংক দৌলতপুর শাখা থেকে মুক্তিযোদ্ধা ভাতার ১২ হাজার টাকা নিয়ে বের হলে ছিনতাইকারী চক্র কৌশলে মুক্তিযোদ্ধা ওয়াজ আলীর গায়ে পায়খানার মল ছিটিয়ে তা পরিস্কার করার জন্য বলে। এসময় মুক্তিযোদ্ধা ওয়াজ আলী ছিনতাইকারীরর কৌশল বুঝিতে না পেলে গায়ের নোংরা পরিস্কার করার জন্য উপজেলা পরিষদ চত্বরের মসজিদে নিয়ে যায়। মসজিদের ট্যাপে শরীরের নোংরা পরিস্কার করার সময় ছিনতাইকারী চক্রের অপর সদস্য সেখানে টাকা ভর্তি ব্যাগটি নিয়ে পালিয়ে যায়।


ঈদ সামনে করে ভাতার টাকা এভাবে ছিনতাইয়ের ঘটনায় স্তব্ধ হয়ে যান মুক্তিযোদ্ধা ওয়াজ আলী। ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন তিনি।ওয়াজ আলী বলেন, ঈদ সামনে ভাতার টাকা দিয়ে কেনা কাটা করবো। আমি মুক্তিযোদ্ধা, মুক্তিযুদ্ধ করেছি। আমার উপজেলা চত্ত্বরে এ ধরণের ঘটলো আমি ভাবতেই লজ্জা পাচ্ছি না। এখানে আগেও এ ধরণের ঘটনা ঘটেছে-প্রশাসন কী এগুলো দেখে?


ন্যাক্কারজন এ ঘটনার বিষয়টি দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তারকে জানানোর জন্য বলা হয় মুক্তিযোদ্ধা ওয়াজ আলীকে। তবে এ বিষয়ে প্রশাসনকে তাৎক্ষনিক কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করতে দেখা যায়নি। জানা যায়, উপজেলা পরিষদের আইন শৃঙ্খলা সভায় একাধিকবার এ বিষয়ে আলোচনা হয়েছে, বৈঠকে প্রশাসনের সকল স্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। তারপরও একের পর এক এ ধরণের ঘটনা ঘটছে।গতকাল সোনালী ব্যাংকের সামনে এ ঘটনা ঘটার পর অনেককে প্রশ্ন করতে দেখা গেছে-উপজেলা প্রশাসনেরর সীমানার মধ্যে এ ধরণের ঘটনা তাহলে কী প্রশাসনের কারো ছত্রছায় এ ধরণের ছিনতাইয়র ঘটনা ঘটছে, নাকি প্রশাসন অসহায়?


জানা যায়, গত ৩ মে সিরাজনগর এলাকার মুক্তিযোদ্ধা আলাউদ্দিনের মুক্তিযোদ্ধা ভাতার ৩০ হাজার টাকা একই কায়দায় ছিনতাই করে নিয়ে যায় ওই চক্র। একই কায়দার আজ সোমবার মুক্তিযোদ্ধা ওয়াজ আলীর ১২ হাজার টাকা ছিনতাই করে নেয় একই চক্র। একইভাকে এক মুক্তিযোদ্ধাসহ আরো ৮জন ব্যক্তির টাকা ছিনতাই করা হয়েছে। একের পর এক টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটলেও প্রশাসন নীরব রয়েছে।


বিষয়টি দেখার জন্য প্রশাসনের উর্দ্ধতন কতৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ভূক্তভোগীসহ সর্বসাধারণ। টাকা ছিনতাই হওয়া মুক্তিযোদ্ধা ওয়াজ আলীর বাড়ি উপজেলার পিয়াপুর ইউনিয়নের আমদহ গ্রামে।


এবিষয়ে দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তার বলেন, আমার কাছে টাকা ছিনতাইয়ের বিষয়ে কেউ জানায়নি। তবে আমি দৌলতপুর থানার ওসিকে অবহিত করেছি বিষয়টি দেখার জন্য।



Comments





Pakkhik Sramik Awaz
Reg: DA5020
News & Commercial:
85/1 Naya Paltan, Dhaka 1000
email: sramikawaznews@gmail.com
Contact: +880 1972 200 275, Fax: +880 77257 5347

Legal & Advisory Panel:
Acting Editor: M M Haque
Editor & Publisher: Zafor Ahmad

Developed by: Expert IT Solution