sa.gif

“৪০ ভাগ বেতন কর্তন মানিনা, পূর্ণবেতন দিতে হবে”
প্রেস বিজ্ঞপ্তি :: 23:11 :: Friday May 1, 2020 Views : 1720 Times

৪০ ভাগ মজুরী কর্তনের সিদ্ধান্ত প্রত্যাখ্যান করে শত ভাগ মজুরীর দাবি জানিয়েছেন গার্মেন্টস শ্রমিক ঐক্য ফোরাম সভাপতি মোশরেফা মিশু।

তিনি বলেন, সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রী, গার্মেন্ট মালিক ও তাদের পোষ্য নেতাদেও নিয়ে ২৮ এপ্রিল শ্রমিকদের বেতনের ৪০ শতাংশ কর্তনের যে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এর মাধ্যমে অত্যন্ত অমানবিক, বঞ্চনা ও প্রতারণার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। আমরা এই সিদ্ধান্ত ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করছি এবং পূর্ণাঙ্গ মজুরী পরিশোধের দাবি জানাচ্ছি। শুক্রবার ১ মে ১৩৪তম মহান মে দিবস পালনের এক ঘোষণার প্রাক্কালে তিনি এ দাবি জানান।

গার্মেন্টস শ্রমিক ঐক্য ফোরাম আজ বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে যথাযথ শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে মহান মে দিবস পালন করেছে। কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ বেলা ১২ টায়, 'দুনিয়ার মজদুর এক হও' শ্লোগান নিয়ে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে কর্মসূচি শুরু করেন।

কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করেন সংগঠনের সভাপতি শ্রমিক নেতা মোশরেফা মিশু, সম্পাদক মণ্ডলীর সদস্য শহীদুল ইসলাম সবুজ, আমেনা আক্তার, মমিনুর রাহমান মমিন, জেবুন্নেছা জেবু, লিয়াকত আলী, শফিউল আলম আজাদ, কবির খান মনির, রাকিুল হাসান সোহাগ, পলাশ হোসেন, মোয়াজ্জেম হোসেন, নয়ন হোসেন, জেসমিন জুই, বাবুল আকতারসহ নেতৃবৃন্দ।


এছাড়াও সাভার শিল্পাঞ্চলে মানব বন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করে সাভার থানা কমিটি। আশুলিয়া শিল্পাঞ্চলের নিশ্চন্তপুরে থানা কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন করে আশুলিয়া থানা কমিটি। ঘোষণাপত্র পাঠ করেন, শহীদুল ইসলাম সবুজ।

ঘোষণায় আরো বলা হয় সা¤্রাজ্যবাদী বিশ্বায়নের দুনিয়ায়, শ্রমিক শ্রেণীকে আর যেন মার খেতে না হয়, সেজন্য দৃঢ় ঐক্য গড়ে তুলতে হবে। সময় এখন সংগঠিত হবার, সংগঠিত হয়েই সকল বঞ্চনা আর না পাওয়ার অধিকার কেড়ে নিতে হবে শ্রমিক শ্রেণীকে।

চলমান করোনা মহামারীর দুর্যোগেও মালিকপক্ষ ও সরকার শ্রমিকদের বঞ্চিত ও জীবনের নিরাপত্তাহীনতায় ঠেলে দিচ্ছে। শ্রমিকদের মূল বেতনের ৪০ ভাগ কেটে নেয়ার মত অমানবিক সিদ্ধান্ত নিতেও তারা কুণ্ঠা বোধ করে না। অপরদিকে করোনা মহামারী যখন জ্যামিতিক হাওে বেড়ে সামাজিক সংক্রমণের ভয়াবহতা সৃষ্টি করছে, তখন গার্মেন্ট মালিকরা ও সরকার কারখানাগুলো খুলে দিয়েছে।


শত শত মাইল দূরে থেকে নানা দুর্ভোগ, হয়রানীর মধ্যদিয়ে শ্রমিকদের কারখানায় ডেকে করোনা সংক্রমণের মহা ঝুকির মধ্যে ফেলে দেওয়া হচ্ছে। হুমকির মুখে এখন শ্রমিকের জীবনের নিরাপত্তা। কারখানাগুলোতে সংক্রমণ শুরু হলে তা আমেরিকা, ইউরোপের ভয়াবহতাকে ছাড়িয়ে আরো মরণঘাতি হয়ে উঠতে পারে।
শ্রমিকরা অসংগঠিত বলেই সরকার ও মালিকরা শ্রমিক স্বার্থবিরোধী তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে। তাই সর্বস্তরের শ্রমিকদের সংগঠিত হয়ে শ্রমিক স্বার্থবিরোধী তৎপরতার বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহবান জানানো হয়।



Comments





Pakkhik Sramik Awaz
Reg: DA5020
News & Commercial:
85/1 Naya Paltan, Dhaka 1000
email: sramikawaznews@gmail.com
Contact: +880 1972 200 275, Fax: +880 77257 5347

Legal & Advisory Panel:
Acting Editor: M M Haque
Editor & Publisher: Zafor Ahmad

Developed by: Expert IT Solution