sa.gif

আন্দোলন দমাতে শ্রমিকের সাথে ট্রেক্স আর্থ নীটওয়ার মালিক প্রতারণা করলো ?
আওয়াজ প্রতিবেদক :: 12:21 :: Monday August 27, 2018 Views : 525 Times

আন্দোলন দমাতে শ্রমিকের সাথে মালিকের প্রতারণার আশ্রয় !

ঘটনাটি গাজীপুরের ভোগরা বাইপাসে অবস্থিত ট্রেক্স আর্থ নীটওয়ার লিঃ কারখানার। কারখানার শ্রমিকরা জানায়, মালিক পক্ষ শ্রমিকদের সাথে আলোচনা করে শ্রমিকদের ছাটাই প্রত্যাহার করেছে। ঈদের পর আবার ছাটাই করেছে। তারা বলেন, সমস্যা সমাধানের নামে মালিক পক্ষের এ ধরণের আচরণ শ্রমিকদের সাথে প্রতারণা করেছে। এতে শ্রমিকদের আপাতত দমানোর চেষ্টা করলেও দীর্ঘ মেয়াদি অসন্তোষের সুত্রপাত করলো।


ঘটনাটি ঘটেছে, চলতি মাসের ১১ তারিখে সোয়েটারের রেট নিয়ে আলোচনার সুত্র ধরে। শ্রমিক আওয়াজের প্রতিনিধিরা সরেজমিনে জানতে পারে ওই দিন কারখানায় নতুন ডিজাইনের কাজ শুরু করে। কাজটি আগের জিাইনের চেয়ে কঠিন। আগের ডিজাইনের রেট ছিল ৩৩, ৩৮ ও ৪৩ টাকা। শ্রমিকদের দাবি পরের ডিজাইনের কাজ কঠিন হওয়ার কারণে ৫০, ৫৫ ও ৬০ টাকা রেট দিতে হবে। মালিকরা আগের রেটে অনড় থাকে।

শ্রমিকদের দাবি নতুন ডিজাইন কঠিন হওয়ার কারণে কিছুটা হলেও দাম বৃদ্ধি করতে হবে। এ দাবিতে তারা কর্মসূচি শুরু করে। এ সময় শ্রমিক পক্ষের দাবি মালিক কোনদিন কারখানায় আসেননি, তিনি কারখানায় এসে যে কথা বলে আমরা শুনে কাজে যোগ দেবো। কিন্তু কারখানার মধ্যম পর্যায়ের কর্মকর্তারা মালিকের সঙ্গে শ্রমিকদের সাক্ষাতের কোন সুযোগ দেয়নি। শ্রমিকদের অবস্থান কর্মসূচি চলতে থাকে।


১৪ আগস্ট ওই কারখানা ইউনিয়ন সভাপতি সাধারণসহ ৩২ জন শ্রমিককে বরখাস্ত করে। এরপর শ্রমিকরা আগের দাবি পাশিপাশি বরখান্ত করা শ্রমিকদের বহালের দাবিতে কর্মবিরত শুরু করে।

১৯ আগস্ট কয়েকজন ৪জন শ্রমিক প্রতিনিধির সাথে মালিক পক্ষ বসে শ্রমিকদের কিছু দাবি মেনে নেয়। এরপর ইদের বেতন বোনাস দিয়ে কারখানা ছুটি  দিয়ে দেয়। পাশাপাশি আন্দোলন চলাকালিন সময়ে বেসিক বেতন দিতে সম্মত হয়। এরপর ইদের ছুটি হয়ে যায়। ছুটির পর শ্রমিকরা কারখানায় এলে দেখতে পায় ইদের আগে ছাটাই প্রত্যাহার করা ৩২ শ্রমিককে আবার ছাটাই করেছে এবং গেটে নোটিশ ঝুলিয়ে দিয়েছে।


শ্রমিকরা অভিযোগ করে বলে, এটা মালিকের প্রতারনা। তারা ইদের আগে বরখান্ত করলো। আন্দোলনের চাপে প্রত্যাহার করলো, দাবি মেনে নিলো। ইদের ছুটির পর আবার ছাটাই করলো। এটা কোনভাবে মেনে নেওয়া যায় না। এ প্রতারণা মালিকের শুধু শ্রম সম্পর্কিত আইন লংঘন নয়। একই সাথে মানবিক ও নৈতিক অপরাধ করেছে। মালিকরা এ ধরণের অপরাধ করতে থাকলে মালিকের বিরুদ্ধে শ্রমিকের ক্ষোভ আর বাড়বে। এটা মালিক-শ্রমিকের সম্পর্কের ক্ষেত্রেও একটি দেওয়াল তৈরি হবে।


এ বিষয়ে মালিক পক্ষের বক্তব্য পাওয়া যায়নি। মালিক পক্ষ আলোচনায় গিয়ে দাবি মেনে নিয়ে আবার কেন তা প্রত্যাহার করলো ? এটা কি শ্রমিক-মালিকের মাঝে বৈরি সম্পর্ক টিকিয়ে রাখার জন্য কারখানার মিড লেভেল ম্যানেজমেন্টের দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তারা ইচ্ছা করে করলো- এ সম্পর্কে সংশ্লিষ্টদের বক্তব্য পাওয়া গেলে শ্রমিক আওয়াজে প্রকাশ করা হবে।



Comments





Pakkhik Sramik Awaz
Reg: DA5020
News & Commercial:
85/1 Naya Paltan, Dhaka 1000
email: sramikawaznews@gmail.com
Contact: +880 1972 200 275, Fax: +880 77257 5347

Legal & Advisory Panel:
Acting Editor: M M Haque
Editor & Publisher: Zafor Ahmad

Developed by: Expert IT Solution