sa.gif

আশিয়ানার শ্রমিক গ্রেফতার ও রিমান্ডের প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তারা
আওয়াজ প্রতিবেদক :: 19:24 :: Monday February 5, 2018



দ্বিতীয় দফা আলোচনা বাতিল করে গ্রেফতার ও
রিমান্ডের পরিণতির দায় মালিকদের নিতে হবে

আন্দোলনরত আশিয়ানা গার্মেন্ট শ্রমিকদের গ্রেফতার ও রিমান্ডে নেয়ার প্রতিবাদে আজ সোমবার ০৫ ফেব্রুয়ারি গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের উদ্যোগে ঢাকার জাতীয় প্রেসক্লাবে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সমাবেশ থেকে আজ দ্বিতীয় দফা আলোচনার সময় নির্ধারণ করে মালিকপক্ষের দ্বারা আলোচনা বাতিল করে শ্রমিকদের গ্রেফতার ও রিমান্ডে নেয়ার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়। সমাবেশ থেকে বলা হয়, আলোচনা ভেস্তে দিয়ে শ্রমিকদের গ্রেফতার ও রিমান্ডে নেয়ার ঘটনা মধ্য দিয়ে মালিকপক্ষ যে পথে অগ্রসর হচ্ছে তার পরিণতির দায় তাদের নিতে হবে।
শ্রমিকরা সোমবার কল-কারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তর ঘেরাও করলে ঢাকা জেলার উপ-মহাপরিদর্শক মালিকপক্ষের সম্মতিতে আজ সকাল ১১টায় তার কার্যালয়ে সমঝোতা সভা আহ্বান করেছিলেন। মালিকপক্ষ সেই সভা একতরফাভাবে বাতিল করে। গতকাল রাত সাড়ে ১০টায় আশিয়ানা গার্মেন্ট কারখানার গেট থেকে কারখানার শ্রমিকনেতা এবং প্রস্তাবিত আশিয়ানা গার্মেন্ট ইন্ডা. লি. শ্রমিক ইউনিয়নের অন্যতম সংগঠক রাসেল আহমেদ ও মুন্না মিয়াকে গ্রেফতার করে। তাদের রমনা থানার পুলিশ হেফাজতে রাতভর রেখে আজ বিকেল ৩টায় সিএমএম আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ড চাওয়া হয়। শ্রমিকনেতা রাসেল ও মুন্নার আইনজীবীগণ জামিন আবেদন করলে এবং নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগ মিথ্যা মর্মে যুক্তি প্রমাণ উপস্থাপন করার প্রেক্ষিতে তাদের ১ দিনের রিমান্ড আদেশ দেয়া হয়।
এ ঘটনার প্রতিবাদে আজ জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনের প্রতিবাদ সমাবেশ থেকে কঠোর আন্দোলনের মধ্য দিয়ে আশিয়ানা গার্মেন্ট কারখানা খুলে দেয়া, অবৈধ বরখাস্ত আদেশ প্রত্যাহার এবং ট্রেড ইউনিয়ন কার্যক্রমের ওপর নির্মম আক্রমণ বন্ধের দাবি আদায় করার ঘোষণা দেয়া হয়। নেতৃবৃন্দ বলেন, গ্রেফতার-রিমান্ড-হামলা-মিথ্যা মামলা দিয়ে ৫০ লক্ষ গার্মেন্ট শ্রমিককে দাবিয়ে রাখা যাবে না। সমাবেশ থেকে সরকার, আইএলও, মানবাধিকার সংগঠনসমূহ সহ দেশের সকল বিবেকবান ব্যক্তি ও সংগঠনের প্রতি আক্রান্ত শ্রমিকদের পক্ষে দাঁড়ানোর আহ্বান জানানো হয়।
গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের কার্যকরি সভাপতি শ্রমিকনেতা কাজী রুহুল আমিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সাধারণ সম্পাদক জলি তালুকদার, সাদেকুর রহমান শামীম, কেএম মিন্টু, মঞ্জুর মঈন, জয়নাল আবেদীন, প্রস্তাবিত আশিয়ানা গার্মেন্ট শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি আনিসুর রহমান রুবেল, সাংগঠনিক সম্পাদক রাবেয়া আক্তার প্রমুখ।
উল্লেখ্য, গত বছর মে মাসে আশিয়ানা কারখানার শ্রমিকরা একটি ইউনিয়ন গঠন করে আইনী পথে তা নিবন্ধনের আবেদন করেছিল। মালিক পক্ষ তার সর্বশক্তি নিয়োগ করে নিবন্ধ না পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে। শ্রমিকরা যাতে ভবিষ্যতে শ্রমিক ও শিল্পের স্বার্থ রক্ষায় দায়িত্বশীল কোনো ট্রেড ইউনিয়ন নিবন্ধন নিতে না পারে সেজন্য মালিক পক্ষ কারখানার ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তাদের শ্রমিক সাজিয়ে একটি ভুয়া ইউনিয়ন নিবন্ধন নেয়ার ব্যবস্থা করে। নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, এখানেই না থেমে ইতোপূর্বে কারখানার মালিক পক্ষ শ্রমিকদের মধ্যে নেতৃস্থানীয়দের চাকুরিচ্যুতির একাধিক উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। সর্বশেষ তারা কারখানার লাইন আয়রণম্যান মামুন কে বেআইনী ভাবে বরখাস্ত করলে শ্রমিকরা তার প্রতিবাদ জানায়। এঘটনার পরের দিন ৩০ জানুয়ারি কারখানা কর্তৃপক্ষ সম্পূর্ণ বেআইনীভাবে কারখানা বন্ধ ঘোষণা করে। সমস্যা সমাধানে পরের দিন নির্ধারিত সভাকে কেন্দ্র করে শ্রমিকরা মালিক সমিতি বিজিএমইএ কার্যালয়ে গেলে আলোচনা হবে না বলে বিজিএমইএ কর্তৃপক্ষ জানিয়ে দেন। শ্রমিকরা কারখানা খুলে দেয়ার দাবিতে সেখানে শান্তিপূর্ণ সমাবেশ শুরু করলে একপর্যায়ে বিজিএমইএ’র সিনিয়র অতিরিক্ত সচিব মনসুর খালেদের নেতৃত্বে শ্রমিকদের ওপর হামলা করা হয়।



 



Comments



Pakkhik Sramik Awaz
Reg: DA5020
News & Commercial:
85/1 Naya Paltan, Dhaka 1000
email: sramikawaz@yahoo.com
Contact: +880 1712 557138, Fax: +880 77257 5347

Legal & Advisory Panel:
Acting Editor: M M Haque
Editor & Publisher: Zafor Ahmad

Developed by: Nex-Ge Technologies Ltd.