sa.gif

সবচেয়ে বেশি শিশুশ্রমিক আলাউদ্দিন টেক্সটাইলে
আওয়াজ প্রতিবেদক :: 19:07 :: Monday January 22, 2018 Views : 12 Times

টাঙ্গাইল শহরের আগেই বিসিক শিল্পনগরীর পার্শ্ববর্তী খুদিরামপুরে আলাউদ্দিন টেক্সটাইল মিলসের কারখানা। সেখানে অতিরিক্ত তাপ ও শব্দের মধ্যে কাজ করে ১২ বছর বয়সী উজ্জ্বল মিয়া। সহকর্মীদের মধ্যে তার সমবয়সী রয়েছে ৫০ জন। শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, দেশে সবচেয়ে বেশি শিশুশ্রমিক রয়েছে কারখানাটিতে।

জানা গেছে, শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অধীনস্ত কল-কারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তর ডিআইএফই গত আগস্টে শিল্প-কারখানায় শিশুশ্রম শনাক্তের কাজ শুরু করে। দেশের ২৩টি জেলায় সংস্থার পরিদর্শকরা ডিসেম্বর পর্যন্ত ১১টি খাতের ৩১৩টি কারখানায় ৮৫৬ জন শিশুশ্রমিক শনাক্ত করে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি পরিমাণ শিশুশ্রম শনাক্ত হয়েছে টাঙ্গাইলে এটিএমের টপ স্পিনিং মিলসে।

জানতে চাইলে ডিআইএফইর মহাপরিদর্শক সামছুজ্জামান ভুইয়া বলেন, ২০২১ সালের মধ্যে ঝুঁকিপূর্ণ খাতগুলোকে শিশুশ্রম মুক্ত করতে আমরা কাজ শুরু করেছি। মাঠ কার্যালয় থেকে ঝুঁকিপূর্ণ খাতে কর্মরত শিশুশ্রমিক সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ করেছি। শিশুশ্রমের সংখ্যা যতই থাকুক না কেন, শনাক্ত হওয়া সব কারখানার বিষয়ে পদক্ষেপ নিতে জেলার পরিদর্শকদের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে ডিআইএফইর একজন কর্মকর্তা বলেন, এটিএমের কারখানায় শিশুশ্রম আছে, এটি ডিআইএফইর পরিদর্শনেই বেরিয়ে এসেছে। টাঙ্গাইলে অধিদপ্তরের আওতাধীন কারখানাগুলোর মধ্যে এ কারখানাতেই শিশুশ্রম সবচেয়ে বেশি। অতিরিক্ত তাপ ও শব্দের মধ্যে স্বাস্থ্যঝুঁকি নিয়ে এটিএমের কারখানায় শিশুরা কাজ করছে বলেও তিনি জানান।

১৯৮১ সালে বস্ত্র খাতে যাত্রা শুরু করে আলাউদ্দিন টেক্সটাইল মিলস লি. (এটিএম)। বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী পোশাক লুঙ্গি তৈরি করে এ প্রতিষ্ঠানটি।

কারখানায় শিশুশ্রমিকের বিষয়টি অস্বীকার করেনি এটিএম কর্তৃপক্ষ। এটিএমের ব্যবস্থাপনা পরিচালক দিলিপ কুমার সাহা বলেন, আমরা চাই না শিশুশ্রমিক কাজ করুক। আমাদের কারখানায় শিশুশ্রম নেই তা বলব না। আমাদের কারখানাটিতে যেটা হয়েছে, এই শিশুদের মা-বাবার অনুরোধেই প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারা কাজে নিয়োগ দেন।

এ প্রসঙ্গে শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক বলেন, টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার (এসডিজি) সঙ্গে সমন্বয়ের মাধ্যমে শিশুশ্রম নিরসনের জন্য আমরা নতুনভাবে জাতীয় কর্মপরিকল্পনা নির্ধারণের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছি। এসডিজির লক্ষ্য অনুযায়ী সরকার ২০২১ সালের মধ্যে ঝুঁকিপূর্ণ শিশুশ্রম নিরসন ও ২০২৫ সালের মধ্যে সব ধরনের শিশুশ্রম নিরসনের অঙ্গীকার করেছে। অঙ্গীকার অনুযায়ী শিশুশ্রম নিরসনে বিদ্যমান জাতীয় কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়নের স্বল্প, মধ্য ও দীর্ঘমেয়াদি সুনির্দিষ্ট সময় নির্ধারণের কাজ শুরু হয়েছে।



Comments





Pakkhik Sramik Awaz
Reg: DA5020
News & Commercial:
85/1 Naya Paltan, Dhaka 1000
email: sramikawaznews@gmail.com
Contact: +880 1972 200 275, Fax: +880 77257 5347

Legal & Advisory Panel:
Acting Editor: M M Haque
Editor & Publisher: Zafor Ahmad

Developed by: Expert IT Solution