sa.gif

মজুরি বোর্ড গঠনের প্রস্তাবে মোশরেফা মিশুর প্রতিক্রিয়া
বিজিএমইএকে ধন্যবাদ, দাবি মত ন্যুনতম মজুরি ১৬ হাজার করা হোক
আওয়াজ প্রতিবেদক :: 18:33 :: Wednesday November 15, 2017


গার্মেন্ট শ্রমিকদের মজুরি বৃদ্ধি করতে মজুরি বোর্ড গঠনের জন্য শ্রম মন্ত্রণালয়কে চিঠি দেওয়ায় বিজিএমইএ-কে ধন্যবাদ জানিয়েছে গার্মেন্ট শ্রমিক ঐক্য ফোরামের সভাপতি মোশরেফা মিশু। তিনি বলেন, গত একবছর ধরেই আমরা মজুরি বৃদ্ধি করার জন্য আন্দোলন শুরু করেছি। বিজিএমইএ বাস্তব পরিস্থিতি বিবেচনা করেছে। এখন তারা শ্রমিকদের দাবি মত বেসিক ১০ হাজার টাকা এবং মোট মজুরি ১৬ হাজার টাকা করুক-আমরা এখন সেটা প্রত্যাশা করি। শ্রমিক আওয়াজ সাথে ফোনে এক সাক্ষাতকারে তিনি এ কথা বলেন।
মোশরেফা মিশু বলেন, বাজার পরিস্থিতি বিবেচনায় গত বছর মে মাসে আমরা ন্যুনতম মজুরি বোর্ডের কাছে মজুরি বৃদ্ধির জন্য চিঠি দিয়েছিলাম। কেন মজুরি বৃদ্ধি করা প্রয়োজন সে ব্যাপারে ব্যাখা করে ন্যুনতম মজুরি বোর্ডের কাছে স্মরকলিপির মাধ্যমে বলেছিলাম। একই দাবিতে আমরা বিজিএমইএ ও বিকেএমইএকে চিঠি দিয়েছিলাম। এ ব্যাপারে শ্রমমন্ত্রীর কাছেও স্মারকলিপি দিয়েছিলাম। আমরা সেখানে বলেছিরাম পাঁচ বছর পর মজুরি বৃদ্ধি করার কথা বলা হলেও তিনবছরে মূল্য বৃদ্ধির ফলে প্রাপ্ত মজুরি দিয়ে শ্রমিকদের সংসার চলছে না। এই সময়ে নিত্যপণ্যের দাম বেড়েছে, বাড়িভাড়া বেড়েছে। এ অবস্থায় শ্রমিকরা মানবেতর জীবন-যাপন করছে। এ জন্য শ্রমিকদের মজুরি বৃদ্ধি জরুরি। আমরা সেখানে দাবি করেছি বেসিক ১০ হাজার টাকা এবং সব মিলিয়ে ১৬ হাজার টাকা মজুরি করতে হবে।
বিজিএমইএ এর প্রস্তাব মত দ্রুত মজুরি গঠনের দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা দেখতে চাই তারা চিঠি দিয়েছে এই চিঠির মধ্যে কয়েক বছর চলে গেল-এমন যেন না হয়। দ্রুত ন্যুনতম মজুরি বোর্ড গঠন করে মজুরির বৃদ্ধির ব্যবস্থা করা হোক। বোর্ড যেন শ্রমিকদের মোট মজুরি ন্যুনতম মজুরি ১৬ হাজার করে- সেটাও আমরা দেখতে চাই।
এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বিজিএমইএ স্পষ্ট করে বলছে- মজুরি বৃদ্ধির দাবিতে শ্রমিকদের মধ্যে অসন্তোষ হতে পারে। এ ছাড়া বাইরে থেকেও মজুরি বৃদ্ধির জন্য চাপ আছে। সব কিছু মিলিয়ে তারা চিন্তা করছে মজুরি বৃদ্ধি না করা হলে তৈরি পোশাক শিল্পে অসেন্তাষ হতে পারে। আর শ্রমিক সংগঠনগুলোর পক্ষ থেকে আমরা একবছর আগে থেকে মজুরি বৃদ্ধির জন্য আন্দোলন করছি, তা এখনো চলমান আছে। এ বছরের মধ্যে যদি মজুরি বৃদ্ধির কার্যকর উদ্যোগ না নেয়া হয় নেয় তাহলে শ্রমিকরা আন্দোলন করবে। সে মত আমরা চাই ডিসেম্বরের মধ্যে মজুরি বৃদ্ধি করা হোক।



Comments



Pakkhik Sramik Awaz
Reg: DA5020
News & Commercial:
85/1 Naya Paltan, Dhaka 1000
email: sramikawaz@yahoo.com
Contact: +880 1712 557138, Fax: +880 77257 5347

Legal & Advisory Panel:
Acting Editor: M M Haque
Editor & Publisher: Zafor Ahmad

Developed by: Nex-Ge Technologies Ltd.