‘বিদেশী কাপড়ের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে ক্ষুদ্র ও মাঝারি বস্ত্র শিল্প-প্রতিষ্ঠানগুলোকে সরকারের পক্ষ থেকে সহায়তা করা হবে’ বলে জানিয়েছেন বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম।
বাংলাদেশ সচিবালয়ের বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ে বুধবার সকালে স্পেশালাইজড টেক্সটাইলস মিলস এন্ড পাওয়ারলুম ইন্ডাস্ট্রিজের প্রতিনিধিদের সঙ্গে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় প্রতিমন্ত্রী এ কথা বলেন।
সরকারের সহায়তা প্রসঙ্গে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ক্ষুদ্র ও মাঝারি বস্ত্র শিল্প-প্রতিষ্ঠানগুলোকে পোশাক রপ্তানির ক্ষেত্রে সব ধরনের সহায়তা দেওয়া হবে।
মির্জা আজম বলেন, দেশীয় ক্ষুদ্র ও মাঝারি বস্ত্র শিল্পের প্রসারে উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। তাই বিদেশী কাপড়ের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে তৈরি পোশাক শিল্পের কাঁচামাল বিদেশ থেকে আমদানি কমাতে হবে। পাশাপাশি বস্ত্র ও পোশাক রফতানি বাড়াতে হবে।
তিনি আরও বলেন, বর্তমানে বস্ত্র তৈরি খাতে ব্যবহৃত পুরানো যন্ত্রপাতি পরিবর্তন করে আধুনিক যন্ত্রাংশ লাগানো হয়েছে। ফলে এ শিল্পে ব্যবহৃত সকল কাপড় দেশে উৎপাদন করা সম্ভব হবে।
মতবিনিময় সভায় বাংলাদেশ স্পেশালাইজড টেক্সটাইলস মিলস্ এন্ড পাওয়ারলুম ইন্ডাস্ট্রিজের সভাপতি আজিজুল হক লিখিত বক্তব্যে উইভিং শিল্পের সম্ভাবনা ও বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতা তুলে ধরেন।
বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম সকল প্রতিবন্ধকতা দ্রুত সমাধানের আশ্বাস দেন।
সভায় বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ে সচিব ফরিদ উদ্দিন আহম্মদ চৌধুরী, অতিরিক্ত সচিব মো. মেসবাহুল ইসলাম, বাংলাদেশ স্পেশালাইজড টেক্সটাইলস মিলস এন্ড পাওয়ারলুম ইন্ডাস্ট্রিজের সভাপতি আজিজুল হক, ভাইস পেসিডেন্ট নূর আলী, পরিচালক ও সদস্য সচিব শেখ আব্দুল হাকিমসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

" />
sa.gif

‘প্রতিযোগিতায় টিকতে বস্ত্রশিল্পকে সহায়তা করবে সরকার’
আওয়াজ প্রতিবেদক :: 16:39 :: Wednesday October 21, 2015


‘বিদেশী কাপড়ের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে ক্ষুদ্র ও মাঝারি বস্ত্র শিল্প-প্রতিষ্ঠানগুলোকে সরকারের পক্ষ থেকে সহায়তা করা হবে’ বলে জানিয়েছেন বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম।
বাংলাদেশ সচিবালয়ের বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ে বুধবার সকালে স্পেশালাইজড টেক্সটাইলস মিলস এন্ড পাওয়ারলুম ইন্ডাস্ট্রিজের প্রতিনিধিদের সঙ্গে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় প্রতিমন্ত্রী এ কথা বলেন।
সরকারের সহায়তা প্রসঙ্গে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ক্ষুদ্র ও মাঝারি বস্ত্র শিল্প-প্রতিষ্ঠানগুলোকে পোশাক রপ্তানির ক্ষেত্রে সব ধরনের সহায়তা দেওয়া হবে।
মির্জা আজম বলেন, দেশীয় ক্ষুদ্র ও মাঝারি বস্ত্র শিল্পের প্রসারে উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। তাই বিদেশী কাপড়ের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে তৈরি পোশাক শিল্পের কাঁচামাল বিদেশ থেকে আমদানি কমাতে হবে। পাশাপাশি বস্ত্র ও পোশাক রফতানি বাড়াতে হবে।
তিনি আরও বলেন, বর্তমানে বস্ত্র তৈরি খাতে ব্যবহৃত পুরানো যন্ত্রপাতি পরিবর্তন করে আধুনিক যন্ত্রাংশ লাগানো হয়েছে। ফলে এ শিল্পে ব্যবহৃত সকল কাপড় দেশে উৎপাদন করা সম্ভব হবে।
মতবিনিময় সভায় বাংলাদেশ স্পেশালাইজড টেক্সটাইলস মিলস্ এন্ড পাওয়ারলুম ইন্ডাস্ট্রিজের সভাপতি আজিজুল হক লিখিত বক্তব্যে উইভিং শিল্পের সম্ভাবনা ও বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতা তুলে ধরেন।
বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম সকল প্রতিবন্ধকতা দ্রুত সমাধানের আশ্বাস দেন।
সভায় বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ে সচিব ফরিদ উদ্দিন আহম্মদ চৌধুরী, অতিরিক্ত সচিব মো. মেসবাহুল ইসলাম, বাংলাদেশ স্পেশালাইজড টেক্সটাইলস মিলস এন্ড পাওয়ারলুম ইন্ডাস্ট্রিজের সভাপতি আজিজুল হক, ভাইস পেসিডেন্ট নূর আলী, পরিচালক ও সদস্য সচিব শেখ আব্দুল হাকিমসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।



Comments





Pakkhik Sramik Awaz
Reg: DA5020
News & Commercial:
85/1 Naya Paltan, Dhaka 1000
email: sramikawaznews@gmail.com
Contact: +880 1972 200 275, Fax: +880 77257 5347

Legal & Advisory Panel:
Acting Editor: M M Haque
Editor & Publisher: Zafor Ahmad

Developed by: Expert IT Solution